Advertisement

Responsive Advertisement

এফিলিয়েট মার্কেটিং কি ? Affiliate marketing করে মাসে 2000 ডলার ইনকাম করবেন

AFFILIATE MARKETING অনলাইন টাকা আয়ের সেরা মাধ্যম।


যদি আপনার একটি ভালো ব্লগ ।এবং আপনি যদি একজন ইউটিউবার হয়ে থাকেন বা ওয়েবসাইট থেকে থাকে তাহলে আপনি Affiliate marketing করে খুব ভালো পরিমাণে ইনকাম করতে পারেন।


এমনিতেই এডসেন্স থেকে ইনকাম সেরা। তবুও আমরা মনে করি এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করাটা

সবথেকে বেশি লাভজনক।ফেসবুক পেজ  দিও এফিলিয়েট মার্কেটিং করা সম্ভব কিন্তু তেমন লাভজনক না।


Affiliate marketing কি



 এফিলিয়েট মার্কেটিং মার্কেটিং কি ?


এফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে করতে হয় আমরা একটু পরে তা জানব। চলুন জেনে নেই।

এফিলিয়েট মার্কেটিং কি হয় কোন প্রোডাক্ট বা পন্য সেল করা  ক বিভিন্ন ধরনের MARKETPLESS


অ্যামাজন ,দারাজ,বিডি শপ ইত্যাদি  এসব মার্কেটপ্লেসে যে প্রোডাক্ট গুলো পাওয়া যায় তার 

ডিজিটাল ভাবে   ব্লগ ওয়েবসাইট  ইউটিউব এর মাধ্যমে পণ্য এর লিংক শেয়ার করে, পণ্য প্রমোট করাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলে বা এফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়।

উদাহরণস্বরূপ

মনে করেন কয়েকদিন আগে আমি একটা শার্ট কিনছি এবং তা ইউটিউব বা ব্লগের মাধ্যমে সবার

কাছে শেয়ার করছি ।এখন ওইখানে শার্টের সুবিধা ও অসুবিধা সবকিছুই রেখেদিয়েছি ।পোষ্টের


শেষে আমি একটা লিঙ্ক দিয়েছি যেটা  আপনারাও সে শার্টটা কিনলেন। তাহলে আমি কমিশন পেলাম।

এভাবে আপনারা যেকোনো প্রডাক্টের রিভিউ করে এফিলিয়েট লিংক এর প্রমোট করে কমিশন পেতে পারেন। 


যদি আপনার একটি ব্লক বা ওয়েবসাইট ইউটিউব চ্যানেল ফেসবুক পেজ থাকে। অনেক  ভিউস  আসে

তাহলে আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না। এফিলিয়েট মার্কেটিং আপনাকে কত টাকা আয় করে দিতে পারে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আনলিমিটেড ইনকাম করতে পারবে…


আশাকরি এফিলিয়েট মার্কেটিং কি সেটা খুব ভালো করে বুঝে গেছেন


আরো পোস্ট।

পাঁচটি উপায় এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করতে পারেন।

১।সবচেয়ে আগে আপনাকে একটি পেজ, ব্লগ, ইউটিউব চ্যানেল , সোশ্যাল মিডিয়া   পেজ থাকতে হবে।

এবং সেখানে   যেন ভালো ভিজিটর থাকে। কারণ ডিজিটাল মার্কেটিং করতে গেলে সবচেয়ে 

জরুরি  অডিয়েন্স  কারণ অডিয়েন্স এর উপর ভিত্তি করে আপনার প্রোডাক্ট সেল করতে হবে

এই চারটা জিনিস আপনাকে লাগবেই ।


২।আমরা যদি ব্লগ ইউটিউব চ্যানেল সোশ্যাল মিডিয়া পেজ ভালো আছে তাহলে আপনি এফিলিয়েট প্রোগ্রাম

এ জয়েন করে। তাদের প্রোডাক্ট বা সামগ্রী প্রমোট শেয়ার করতে পারেন।


৩। এখন আপনি  এফিলিয়েট  নেটওয়ার্ক বা এফিলিয়েট প্রোগ্রাম করে ।আপনার  কয়েকটি নিস সিলেক্ট করে

সামগ্রী বা প্রোডাক্ট বাছাই করতে হবে ।


৪।আপনার প্রোডাক্ট বা সামগ্রী লিংক পেয়ে যাবেন এই লিঙ্ক শেয়ার করে প্রমোট বা প্রোডাক্টের পেজে

আসতে পারবি। এবং ডাইরেক্ট প্রোডাক্ট  কিনে নিতে পারবেন।


৫। এরপর আপনাকে প্রোডাক্টের লিংক ব্লগ, ইউটিউব চ্যানেল সোশ্যাল মিডিয়া পেজে শেয়ার করতে হবে।

এখন এই লিঙ্ক থেকে যদি কেউ প্রোডাক্ট বা পণ্য কেনে ।এফিলিয়েট নেটওয়ার্ক  তাহলে  আপনাকে টাকা

দেবে কমিশন হিসেবে।

AFFILIATE MARKETING এর  দাঁড়া কত টাকা আয় করা যাবে

এটা নির্ভর করবে পুরোপুরি আপনার উপর। আপনি যেমন প্রোডাক্টের রিভিউ বা শেয়ার করতে পারবেন।

এবং আপনার ভিজিটর কেমন তা আপনাকে ঠিক করতে  হবে ।আজ লোকেরা এই 


এফিলিয়েট নেটওয়ার্ক এর মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে আর তাই অল্প কিছুদিন চেষ্টা করলে আপনি

ইনকাম করতে পারবেন। কিন্তু আপনাকে কিছু জায়গায় এক্সপার্ট হতে হবে। 


এফিলিয়েট মার্কেটিং পুরোপুরি নির্ভর করে


  • আপনি কত দামী প্রোডাক্ট মার্কেটিং করছেন।

  •  প্রোডাক্টের কমিশন কত।

  •  প্রোডাক্ট এর চাহিদা। 

  • আপনি কতটি প্রডাক্ট এফিলিয়েট লিংক এর মাধ্যমে সেল করেছেন।


এই জিনিসগুলোর উপরেই নির্ভর করে আপনার ইনকাম।


 একটু কঠিন কিন্তু আপনি এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর ব্যবসায় একবার বুঝে গেলে। কত টাকা উপার্জন করতে

পারবেন আপনি ভাবতেই পারবেন না। 


 কিছু বিখ্যাত  affiliate network সাইট


  1. Amazon affiliate program

  2.  eBay  affiliate program

  3. Flipkart affiliate program

  4. Godaddy

  5.  hostgator  affiliate network 

এর বাইরে আরও  লোকাল এফিলিয়েট প্রোগ্রাম এর সাইট রয়েছে যারা ভালো কমিশন  দেয়।

আপনি গুগল এ গিয়ে তাদের এফিলিয়েট প্রোগ্রাম জয়েন করতে পারেন

AFFILIATE MARKETING কিছু জরুরি প্রশ্ন ও উত্তর

কিছু কমন প্রশ্ন এর উত্তর দেওয়া হল।

  1.  এফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ জয়েন করতে কি টাকা লাগে। 

না এফিলিয়েট প্রোগ্রাম আয়োজন করতে কোন টাকা লাগে না 


২,কিভাবে প্রডাক্ট প্রমোশন করবেন

আপনার ব্লগ, ইউটিউব চ্যানেল এর মাধ্যমে প্রোডাক্টের রিভিউ করে প্রডাক্ট প্রমোশন করবেন। 

এবং সেখান থেকেই আপানারা আ[নাদের কমিশন পেয়ে জাবেন।


আয় করা টাকা কিভাবে তুলবেন

এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে ইনকাম করা টাকা আপনি ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে উঠিয়ে নিতে পারবেন। আপনাকে ব্যাংক একাউন্ট সিলেট করার অপশন দেয়া হবে।


BESTBANGLATIPS এর পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

FACEBOOK contect

Post a Comment

0 Comments